Hits: 0

মোঃ শফিকুর রহমান (বান্দরবান প্রতিনিধি)
প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার স্বরূপ বিনা খরচে ভুমিহীনদের বাড়ী তৈরী করে দেয়ার কথা থাকলেও বান্দরবান সদর উপজেলার সুয়ালক ইউনিয়নে ভূমিহীনদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জেলার সদর উপজেলাধীন সুয়ালক ইউনিয়নের আমতলী মার্মা পাড়া, আমতলী তঞ্চঙ্গ্যা ও গণেশ পাড়ার ভূমিহীন ২০ পরিবারের  কাছ থেকে পরিবার প্রতি ৩০ হাজার করে টাকা নিয়েছে  স্থানীয় মেম্বার শৈক্যহ্লা মার্মা।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, সদর উপজেলার সুয়ালক ইউনিয়নের আমতলী মার্মা পাড়া, আমতলী তঞ্চঙ্গ্যা ও গণেশ পাড়ার ভূমিহীন ২০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্বরূপ গৃহ নির্মাণ করে দেয়ার প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়।

এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে গিয়ে অতিরিক্ত টাকা লাগবে বলে প্রতিটি ভূমিহীন পরিবারের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা করে আদায় করা হয়।

অভিযোগকারীরা জানান, চেয়ারম্যান নির্দেশ প্রদান করেছে বলে মেম্বার শৈক্যহ্লা মার্মা আমাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা করে নেয়।

মেম্বার আমাদের বলেন- সরকার প্রদত্ত টাকা দিয়ে ঘর মজবুত হবে না, তাই ঘর মজবুত করে দেয়ার জন্য এই টাকা নেয়া হচ্ছে। অভিযোগকারীরা আরও জানান, ঘর কোন মজবুত হয় নাই, একটু বৃষ্টি হলেই উপর থেকে ঘরের ভিতর পানি ডুকে যায়।

এই অভিযোগের সত্যতা জানতে ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার শৈক্যহ্লা মার্মার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ভূমিহীনদের কাছ থেকে টাকা নেয়া হয়েছে এটা সত্য। তবে এই টাকা ভূমিহীনদের গৃহ নির্মাণ কাজে ব্যয় করা হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন।

তিনি আরও জানান, প্রাপ্ত সরকারি বরাদ্দকৃত টাকা দিয়ে পাহাড়ী অঞ্চলে পাকা গৃহ নির্মাণ সম্ভব নয়। তাই ভূমিহীনদের সাথে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে অতিরিক্ত টাকা আদায় সাপেক্ষে বরাদ্দকৃত গৃহ গুলো মজবুত করে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে সুয়ালক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উক্যনু মার্মার কাছ থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, টাকা নেওয়ার বিষয়ে আমি কিছুই জানি না।

প্রধানমন্ত্রীর প্রদত্ত ঘর বরাদ্দ পাওয়ার পর আমি এলাকার মেম্বারদেরকে দায়িত্ব দিয়েছি ঘর নির্মাণ করে দেয়ার জন্য। উপকারভোগীরা কেউ অতিরিক্ত টাকা নেয়ার বিষয়ে অভিযোগ করে নাই আমার কাছে।

বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌসিফ আহমেদ জানান, ভূমিহীনদের জন্য বিনামূল্যে বাড়ি এটি প্রধানমন্ত্রীর উপহার। এই বাড়ী তৈরী করে দেয়ার নামে টাকা নেয়ার প্রশ্নই আসে না। যদি কেউ নিয়ে থাকে তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply