Hits: 28

মোঃ শফিকুর রহমান (বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি):
পাহাড় আর সাঙ্গু নদীর চমৎকার প্রাকৃতি পরিবেশে গড়ে উঠে বান্দরবানের প্রথম শিশুপার্ক। পর্যটন নগরী বান্দরবানের বিনোদন প্রেমী সাধারণ মানুষের কাঙ্খিত এই শিশুপার্কটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ৬ই মে ২০১৭ ইং সালে যার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং।

জনসাধারণ ও পর্যটকদের জন্য প্রায় চার বছর পর এই শিশুপার্কটির নির্মানণ কাজ সম্পন্ন হয়। ১৬ই ফেব্রুয়ারী ২০২১ এ শিশুপার্কটির উদ্ভোধন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং । উদ্ভোধনের পর হতে মুখরিত হয় বান্দরবানে নির্মিত শিশু বিনোদন কেন্দ্র এই শিশু পার্কটি।

প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যায়ে এক একর জায়গা জুড়ে শিশু পার্কটিতে দৃষ্টিনন্দন স্থাপত্যশৈলী কারুশিল্প, মৃৎ শিল্পের কাজ করা হয়েছে। সংযোজন করা হয়েছে স্লিপার, ঢেঁকি, দোলনা, পানির ফোয়ারা, শিশু কর্ণারসহ দেশী বিদেশী ৮টি ছোট বড় রাইড। শিশুদের মানসিক বিকাশের জন্য পার্কটির কাজ বাস্তবায়ন করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড।

শিশু পার্কটির উদ্ভোধণের পর হতে এর সার্বিক ব্যাবস্থাপণার দায়িত্ব নেয় বান্দরবান পৌরসভা।দীর্ঘদিন লকডাউন থাকার কারণে শিশুপার্কটি জনসাধারণের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে।শিশু পার্কটির বর্তমান অবস্থা খুবই নাজুক।

দেশি বিদেশি রাইডগুলো পরিচর্যার অভাবে বেহাল দশা,মাঠে এবং বাগান পরিচর্যার কোন ব্যাবস্থা না রাখায় কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত এই শিশুপার্কটি দৃষ্টি নন্দন রুপ হারিয়ে ফেলছে। মাস খানেক আগে একটি মাহিন্দ্রার ধাক্কায় ভেঙ্গে যাওয়া ডাইনোসর স্টাচু টাও পুরোপুরি ঠিক করা হয় নি।

শিশুপার্কের সার্বিক ব্যাবস্থাপনার বিষয়ে বান্দরবান পৌরসভার সচিব তৌহিদুল ইসলামর কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদক কে যানান দীর্ঘদিন লকডাউনের কারনে শিশুপার্কটি বন্ধ আছে লক ডাউন শেষ হলে আমরা আবার তা জনসাধারণের জন্য খুলে দিবো। পরিচর্যার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি এ বিষয়টি এড়িয়ে যান।

বান্দরবানের সাধারণ মানুষ মনে করে জেলা শহরে শিশুদের জন্য নির্মিত এই একটি পার্ক রক্ষনাবেক্ষন খুবই জরুরী।শিশুপার্কটি বান্দরবানের স্থানীয় শিশুদের পাশাপাশি পর্যটকদেরও নির্মল বিনোদন যোগাবে বলে আশা করেন অনেকে।

Leave a Reply